• সাভার

  •  মঙ্গলবার, জুন ১৮, ২০২৪

নগর জুড়ে

কুকুরের সঙ্গে শিকলে বেঁধে নির্যাতন, আসামি গ্রেপ্তার

নিজস্ব প্রতিবেদক

 প্রকাশিত: ০৯:২৬, ১৭ মে ২০২৪

কুকুরের সঙ্গে শিকলে বেঁধে নির্যাতন, আসামি গ্রেপ্তার

কুকুরের সঙ্গে শিকলে বেঁধে নির্যাতন, আসামি গ্রেপ্তার

পাওনা ৮০০ টাকার জন্য শিকলে বেঁধে এক রিকশাচালককে মারধরের ঘটনায় আসামি মামুনকে গ্রেপ্তার করেছে সাভার মডেল থানা পুলিশ। বৃহস্পতিবার (১৬ মে) রাতে সাভারের তেঁতুলঝড়া ইউনিয়নের হেমায়েতপুর বাসস্ট্যান্ড থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

গ্রেপ্তার মামুন ওরফে সুকান্ত দাস চট্টগ্রাম জেলার সাতকানিয়া থানার কালিয়াইশ গ্রামের সুনিলবরম দাসের ছেলে। সে সাভারের তেঁতুলঝড়া ইউনিয়নের ভরালি গ্রামে ভাড়া বাসায় থাকে। পেশায় সে একজন ভাঙারির ব্যবসায়ী।
অন্যদিকে ভুক্তভোগী রিকশাচালক রবিউল ইসলাম সাভারের তেঁতুলঝড়া ইউনিয়নের ঋষিপাড়া মহল্লা পরিবার নিয়ে ভাড়া থাকে। পুলিশ জানায়, পাওনা ৮০০ টাকার জন্য ভাঙারি দোকানের ব্যবসায়ী মামুন রিকশাচালক রবিউলকে কুকুরের সঙ্গে বেঁধে নির্যাতন করে। পরে পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে ভুক্তভোগীকে উদ্ধার করে। তবে সেসময় কৌশলে অভিযুক্ত মামুন পালিয়ে যায়।

সাভার মডেল থানার ট্যানারি ফাড়ির উপ-পরিদর্শক (এসআই ) রাজিব কুমান সাহা  বলেন, মামুন পাওনা টাকার জন্য রবিউল নামে এক রিকশাচালককে কুকুরের সঙ্গে বেঁধে মারধর করে। পরে এঘটনায় মামলা হলে পুলিশ রাতে মামুনকে গ্রেপ্তার করে। প্রসঙ্গত, পাওনা ৮০০ টাকার জন্য মঙ্গলবার (৭ মে) সকাল ৭টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত সাভারের তেঁতুলঝড়া ইউনিয়নের ভরালি বারটেক্স পোশাক কারখানার সামনে কুকুরের সঙ্গে শিকল দিয়ে রিকশাচালক রবিউলকে বেঁধে রাখে মামুন। এসময় পাওনা টাকা দিতে না পারায় রিকশাচালককে মারধর করে সে।

মন্তব্য করুন: